মালয়েশিয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশীদের ঈদ উৎসব

মোস্তফা ইমরান, কুয়ালালামপুর থেকে

PIC_4645

PIC_4624

PIC_4647

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও উৎসবমুখর পরিবেশে মালয়েশিয়ায় উদযাপিত হয়েছে মুসলমানদের দ্বিতীয় সর্ববৃহত উৎসব ‘ঈদ উল আযহা’।

 

রাজধানী কুয়ালালামপুরের জাতীয় মসজিদ মসজিদ-এ নিগারা থেকে শুরু করে প্রায় প্রতিটি জামায়াতে ছিলো প্রবাসী বাংলাদেশীদের অংশগ্রহন। তবে, প্রবাসী বাংলাদেশীদের আয়োজনে কুয়ালালামপুরের একমাত্র ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়েছে, সেলায়েং এর পাসার বরং এ। সকাল সাড়ে আট টায় বায়তুন নুর মসজিদের সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে আয়োজিত প্রায় দশ হাজার মানুষের অংশগ্রহনে অনুষ্ঠিত এ নামাজে ইমামতি করেন, ইমাম মোস্তাফিজুর রহমান।

এছাড়া কুয়ালালামপুরের কেপং, কাজাং, ক্লাং, পেনাং, পুচং, মালাক্কা, শাহ আলম, সুংগাইবুলু, তামিল জায়া ও শ্রীমুদায় প্রবাসী বাংলাদেশীরা ঈদের নামাজ আদায় করে। কুয়ালালামপুর ছাড়াও নামাজ আদায় করেছেন জোহর বারু, পেনাং, পাহাং, ক্লান্তান, মালাক্কাসহ বিভিন্ন স্থানে কর্মরত প্রবাসী বাংলাদেশীরা।

নামাজ শেষে মোনাজাতে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় দোয়া করা হয়। পরে একে অন্যের সঙ্গে কোলাকুলি ও করমর্দনের পর পশু জবাই এ ব্যাস্ত হয়ে পড়েন তারা।

বায়তুন নুর মসজিদের প্রতিষ্ঠতা সভাপতি কামারুজ্জামান কামাল বলেন, প্রবাসে আমরা আত্মীয়-স্বজনবিহীন ঈদ উদযাপন করি। সবাই যাতে আত্মীয় স্বজনের অভাবে মন খারাপ না করে থাকেন সে জন্য আমরা মসজিদের উদ্যোগে ঈদের জামাতের আয়োজন করি। আর এ জামাতের মাধ্যমে প্রবাসে আমরা দেশের প্রশান্তি খুঁজে পাই।

প্রবাসে ঈদের অনুভূতি জানাতে গিয়ে ব্রাহ্মনবাড়িয়ার নাজমুল ইসলাম বাবুল বলেন , প্রতিবছর আমরা এই দিনটি একত্রিত হই, নামাজ আদায় করি, পশু কোরবানি দেই। অল্প সময়ের জন্য হলেও মনে হয় আমরা বাংলাদেশেই আছি।