সেলফির পেটেন্ট, ক্ষতিপূরণ পেল বানর!

এ যেন ‘বানরের গলায় মুক্তার মালা’! সেলফি তুলে বিখ্যাত হওয়া একটি দুর্লভ প্রজাতির ম্যাকাক বানর নিজের হাতেই তোলা নিজের ছবিটির মালিকানা পেয়েছে এবং এখানেই শেষ নয়, তার অনুমতি ছাড়াই একটি বন্যপ্রাণি বিষয়ক বইয়ে ছবিটি ব্যবহার করায় ক্ষতিপূরণও পেয়েছে সে! যুক্তরাষ্ট্রের স্যান ফ্রান্সিসকোতে পশু অধিকার নিয়ে কাজ করা কর্মীদের দায়েরকৃত এক মামলায় একটি মার্কিন জেলা আদালত গত মঙ্গলবার রায় শোনায় বানরটির পক্ষে। হাস্যোজ্জ্বল ছবি তুলে বিখ্যাত হওয়া নারুতো নামের বানরটির বয়স ছয় বছর। ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসি দ্বীপের সংরক্ষিত ট্যাংকোকো অভয়ারণ্যের বাসিন্দা সে। মামলার নথিপত্রে জানানো হয়, বছর চারেক আগে বৃটিশ চিত্রগ্রাহক ডেভিড স্ল্যাটার ওই বনটিতে ছবি তুলতে গিয়ে ব্যবহৃত একটি ক্যামেরা বনেই হারিয়ে এসেছিলেন। ওই ক্যামেরা দিয়ে নারুতো নিজের সেলফি ছাড়াও আরো বেশ কয়েকটি ছবি তোলে। এরপর স্ল্যাটার ক্যামেরাটি খুঁজে পেলে আবিষ্কৃত হয় বানরের তোলা ছবিগুলো। স্ল্যাটার ছবিগুলো প্রকাশ করার পরেই বাঁধে বিপত্তি। মামলায় পড়েন তিনি। মামলার বিষয়ে হতবুদ্ধি স্ল্যাটার রয়টার্সকে জানিয়েছেন, বিষয়টিকে পশু অধিকার সংস্থাটির ‘পাবলিসিটি স্টান্ট’, অর্থাৎ প্রচারণার অপকৌশল হিসেবে দেখছেন তিনি। বানরের নিজের তোলা সেলফি তার ‘অনুমতি ছাড়াই’ বইয়ে প্রকাশ করার মাধ্যমে স্ল্যাটার ‘কপিরাইট আইন ১৯৭৬’ লঙ্ঘন করেছেন বলে মামলার বাদীপক্ষ- পশু অধিকার সংস্থা- পেটা’র অভিযোগ। আর এই অভিযোগকে আদালত সঠিক বলে মনে করায় বানরটিকে ক্ষতিপূরণের যাবতীয় অর্থ পরিশোধ করতে হয়েছে এই চিত্রগ্রাহককেই।