মনোজিৎ মিত্রের একগুচ্ছ কবিতা

Exclusive-Art-with-Electric-Wires-2

আমাদের রূপকথা

কত রূপকথাও তো সত্যি, দেখো আমাদের প্রেমও একদিন রূপকথা হবে!

এই যে তুমি চলে গেছ, চলে গেছো প্রতিদিনের মত কত স্বাভাবিক নিয়মে
একটুও বুঝি নাই, সেইসব ছল! বুঝি নাই তোমার হাসি-খেলার সহজতর
পাঠ! চেনা রাস্তায় তুমিই প্রতিদিন নতুন নতুন সকাল, আলোময় দুপুরের
রোদ্দুর। —চলে গেছো, কত রূপকথাতেই তো, নায়িকার অমন আকস্মিক
প্রস্থান!

তবুও লক্ষ্মী, বিষাদের দিন গুনি। বিস্ময়ের মোড়ক খুলে দেখি সেইসব দিন,
কত রূপকথাও তো সত্যি, দেখো আমাদের প্রেমও একদিন রূপকথা হবে!


জলজ

ছায়া হয়ে, এসেছো কাছে, তাই জানো নাই
সামান্য বাতাসেও কতখানি ভেঙেচুরে যায়
সমস্ত অবয়ব! জলের হৃদয়ের—
ছায়ারা জানে না কিছু, ছায়ারা পায় না টের
কতখানি আছে ডুবে তারা জলের গভীরের।

 

অনর্থক

স্বপ্ন হয়ে শুয়ে ছিলাম, তোমার দুই চোখে,
তুমি তন্দ্রা ভেবে তাড়িয়ে দিলে, কী অনর্থ
সকালবেলায়! অথচ, দেখবে বলে সারাটা
রাত, দু’চোখ বুজে রইলে পড়ে ফুলতোলা
বিছনায়, ঘুমের বাহানায়।

 

 

ফুল ব্যবসায়ীর বাণিজ্যযাত্রা

তোর বাধ্য পা, রয় দূরে দূরে,
আমার অবাধ্য মন কেবলই তোর কাছে ঘোরে।

জানি, এই প্রেমে পৃথিবীর, কিচ্ছু আসে যায় না
জানি, এই রীতি—এ নগরে একেবারে ফেলনা।
জানি, তুই ভাত খেয়ে ধুয়ে রাখিস, হাত ও মন
জানি, তুই জাবেদা-খতিয়ান কষে, ব্যস্ত ভীষণ।

তবুও,
এই শহরে আমার হঠাৎ একলা লাগে। চারপাশ
শূণ্য করে মনের মাঝে তোমার জন্য —গোলাপ
ফুটে উঠে।

আমার অবাধ্য পা।
গোলাপ নিয়ে পথে পথে হাঁটে। গোলাপ শুকায়ে
গেলে দেখি ফের নতুন গোলাপ ফোটে।—পায়ে,
তোমারই পায়ে!

 

মানুষের থেকে দূরে

ভালোবাসতে গিয়ে আমি শিখেছি, প্রতিদিন কত ভালোবাসা
ঘিরে রাখে আমাদের! কত ঘৃণা জুড়ে রাখে আদরে চারপাশ।

পুরোনো যে বাড়ি, পথের পাশে পড়ে আছে অবহেলায় তার
কাছ দিয়ে চলে যাওয়া-আসার সময় টের পাই কত গভীরে
সে ভীষণ একা! তারও কেউ ছিলো একদিন, যে এখন নাই!

মিষ্টির দোকানের পিছে বড় হচ্ছে, এক বাচ্চা বটের শিকড়,
তার সমস্তটা জুড়ে গরম জলের ঘৃণা। সেও আমারে ডেকে
বলে, পুড়ে যাচ্ছে শরীর ভালোবাসার অবহেলায়! প্রতিদিন।

যতটা ভালোবাসতে শিখছি, তত মানুষের থেকে দূরে দূরে
যাই! মানুষের পৃথিবীতে ভালোবাসা নাই, নানাবিধ যন্ত্রণা
ও ফরমায়েশকে তারা ভালোবাসা ভেবে দিন-রাত কাটায়!

 

 মানুষের থেকে কাছে

সামান্য মমতা নিয়ে ডেকে দেখেছি কুকুরকে, তারা ছুটে আসে,
মানুষ আসে না। অনেক ভালোবাসা নিয়ে ডেকে ডেকে হয়রান
হয়ে প্রতিদিন তবুও অপেক্ষা করে রই!

মানুষরে বোধ দাও, প্রভু। কুকুরের চেয়ে যেন সে, কিছুটা জ্ঞানী
হতে পারে। চিনতে পারে ভালোবাসার ডাক, অবিশ্বাস দূর করে
তারে দাও প্রেমের পরশ! নিশ্চিত শ্বাস।

1393612_10200736616197104_1518349761_n