নিজের খেলনা নিজেই বানায় জুপেল

ওকে খেলনা কিনে দেয়ার সামর্থ নেই পরিবারের। তা-ই বলে কি বসে থাকবে? না, বসে ছিল না এই ক্ষুদে। নিজেই নিজের খেলনা বানাতে শুরু করে ফিলিপিন্সের কিশোর জুপেল বাটো বাটো। রাস্তায় ছুটে চলা গাড়ি দেখলে চোখ ফেরাতে পারত না সে। খুব শখ, জিপে চড়ে রোজ সকালে স্কুলে যাবে। কিন্তু তা তো হওয়া সম্ভব নয়। তার মা-বাবা যে খুবই গরিব!

আসল গাড়ির শখ খেলনা গাড়ি দিয়ে মেটানোর পথেও বাধা সেই চরম দারিদ্র। অনেক বন্ধুদের রয়েছে দেশ-বিদেশের নামী গাড়ির ছোট মডেল। খেলনা গ্যারাজে ঝলমলে গাড়ির সারি দিন-রাত তাই জুপেলের স্বপ্নে উঁকি দেয়। কিন্তু সাধ থাকলেও সাধ্য কই? স্বপ্নে দেখা গাড়ির ঝাঁক কি বাস্তবে আদৌ ধরা দেবে?

অনেক ভাবার পর একরত্তি মগজে ঝিলিক মারে দারুণ আইডিয়া। বাড়িতে পড়ে রয়েছে পুরনো, ফেলে দেয়া রবারের চটি-জুতোর স্তূপ। সেই সব কাজে লাগিয়ে অসামান্য সব খেলনা গাড়ি তৈরি করে ফেলল জুপেল। যাবতীয় কল্পনা আর দক্ষতা কাজে লাগিয়ে মাত্র কয়েক দিনের মধ্যে চমকে দেয়ার মতো গাড়ির সংগ্রহ নিজেই গড়ে তুলল সে।

দিনের পর দিন, ঘণ্টার পর ঘণ্টা ধরে ফেলে দেয়া জুতোর সোল খোদাই করে নিত্যনতুন মডেলের গাড়ি তৈরি করে চলেছে একরত্তি ছেলে। তার ছুরির ফলায় একে একে জন্ম নিচ্ছে গাড়ির সিট, স্টিয়ারিং, হেডলাইট, চাকা। তারপর সব পার্টস সেলাই করে পূর্ণ চেহারা পাচ্ছে গাড়িগুলো।

ক্ষুদের কাণ্ড দেখে মুগ্ধ হন তার স্কুলের এক শিক্ষক। তিনিই জুপেলের গাড়ি বানানোর ভিডিও পোস্ট করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। দেখতে দেখতে ভাইরাল হয়ে গেছে সেই ভিডিও। ফিলিপিন্সের স্কুল পড়ুয়ার কীর্তি দেখে স্তম্ভিত সবাই।