পথ-খরচ

12963843_10208535754408894_4998617246350777364_n

নাশিদা খান চৌধুরী

 

অনন্ত যৌবন নিয়ে দাঁড়িয়ে প্রৌঢ়া

কী জ্বালা সাঙ্গ তার ভুবন !

এক ঝুলি স্বপ্ন মাখা এঁটো আঁচলে

গড়াগড়ি পান্তা-দুঃখ রোমন্থন ।

২.

ধুলোমাখা জটাচুল, ছানিচোখ স্বপ্নে বেভুল –

কায়া, ভ্রম, মায়া, মরীচিকা…

৩.

রাতদিন ঝাপসা অস্ফুট বাসনা,

প্রৌড়া খিলখিল হাসে,

সুঁচ খোঁজে বিগত হিসেব

কার ছায়া আবছায় ভাসে !

সুতো বোনে মিথ্যে প্রলেপ

নকশার প্রতি বাঁকে অতুষ্টি রচনা

৪.

ধরা দেবে না ক্ষরশ্বাস তবু উত্তাপে পড়ন্ত পূবাকাশ !

জটায় ধুলোর অধিক স্বপ্নে জেগে আছে

ছানিচোখ বারোমাস ।

৫.

স্বপ্ন ছাড়িয়েছে বলিরেখা কবে !

সাক্ষী !

সেসব ঝড়ে যতবার জেগেছে ত্বক

আড় ভেঙেছে সেই কুহুকেকা রবে ।

৬.

আবার জাগবে যৌবন

একাকিত্বের মৌবন…

চৌচির ঠোঁট,

কাঁপা কাঁপা হাত

পান্তা অসুখে

ঢুলছে প্রভাত !

৭.

কেমন করে ডুবে গেল মুঠো মুঠো শখ অনুরাগে !

মেলেনা কড়ের হিসেব…

আয়ুর খবরে প্রেতাত্মা কবে জাগে !

৮.

আকাঙ্ক্ষায় জরাবে বলে পান্তায় রাখে জ্যোতি,

তোমরা তারে পাগলি বলো !

আমি বলি সতী ।

৯.

ছিন্ন আঁচলের বলিরেখায় নকশার গড়াগড়ি ।

যৌবন শপথ অনন্তকালের !

প্রৌড়া দাঁড়িয়ে রয় হাসিমুখে

হাতে সোনালী সুতোর লাল জড়ি-শাড়ি ।।

DIGITAL CAMERA

DIGITAL CAMERA