জেলা কোটায় সৈনিক নিয়োগ

বাংলাদেশ সেনাবাহিনী জেলা কোটা অনুযায়ী সৈনিক পদে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী সাধারণ ট্রেডে (জিডি) পুরুষ ও নারী এবং কারিগরি ট্রেডে আবেদন করতে পারবেন শুধুই পুরুষ প্রার্থীরা। আবেদন করতে হবে ৫ জানুয়ারি ২০১৭-এর মধ্যে।

আবেদন যোগ্যতা : সাধারণ ট্রেড (জিডি) পুরুষ ও মহিলা : এই পদে আবেদনের জন্য নারী-পুরুষ উভয়কেই এসএসসি অথবা সমমানের পরীক্ষায় কমপক্ষে জিপিএ ৩.০০ পেয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। তবে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে উত্তীর্ণ নারী প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

কারিগরি ট্রেড : কারিগরি ট্রেডে আবেদনের জন্য আবেদনকারীকে এসএসসি অথবা সমমানের পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগ থেকে কমপক্ষে জিপিএ ৩.০০ পেয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে।

চালক : পদটিতে আবেদনের জন্য এসএসসি অথবা সমমানের পরীক্ষায় যে কোনো বিভাগ থেকে জিপিএ ৩.০০ পেয়ে উত্তীর্ণ হলেই চলবে। গাড়ি চালনায় দক্ষ এবং বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকতে হবে। এ ক্ষেত্রে ট্রাস্ট টেকনিক্যাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট (টিটিটিআই) থেকে ড্রাইভিং প্রশিক্ষণের সনদ থাকতে হবে।

অন্যান্য যোগ্যতা : পুরুষ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে উচ্চতা হতে হবে কমপক্ষে ১.৬৮ মিটার বা ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি, তবে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও সম্প্রদায়ের জন্য সর্বনিম্ন উচ্চতা হতে হবে কমপক্ষে ১.৬৩ মিটার বা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি। ওজন হতে হবে ১১০ পাউন্ড বা ৪৯.৯০ কেজি। বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ০.৭৬ মিটার বা ৩০ ইঞ্চি এবং স্ফীত অবস্থায় ০.৮১ মিটার বা ৩২ ইঞ্চি। নারী প্রার্থীদের ক্ষেত্রে উচ্চতা হতে হবে কমপক্ষে ১.৬০ মিটার বা ৫ ফুট ৩ ইঞ্চি। তবে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও সম্প্রদায়ের জন্য সর্বনিম্ন উচ্চতা হতে হবে ১.৫৬ মিটার বা ৫ ফুট ১ ইঞ্চি। ওজন ১০৪ পাউন্ড বা ৪৭ কেজি, বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ০.৭১ মিটার বা ২৮ ইঞ্চি এবং স্ফীত অবস্থায় ০.৭৬ মিটার বা ৩০ ইঞ্চি।

এছাড়া সাধারণ ট্রেডে আবেদনের জন্য ১৫ নভেম্বর ২০১৭ তারিখের হিসাবে আবেদনকারীর বয়স হতে হবে ১৭ থেকে ২০ বছরের মধ্যে এবং কারিগরি ট্রেডে আবেদনের জন্য একই তারিখে আবেদনকারীর বয়স হতে হবে ১৭ থেকে ২১ বছরের মধ্যে। কেবল চালক পদের জন্য বয়স হতে হবে ১৮ থেকে ২১ বছরের মধ্যে।

এছাড়া প্রার্থীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষায় যোগ্য হতে হবে। জানতে হবে সাঁতার। অবিবাহিত হতে হবে, কিন্তু তালাকপ্রাপ্ত হওয়া যাবে না।

যাচাই-বাছাই : ২২ জানুয়ারি থেকে ৩০ জুন সাধারণ সৈনিক পদের বাছাই প্রক্রিয়া চলবে বিভিন্ন সেনানিবাসে। শুরু হবে স্বাস্থ্য পরীক্ষা দিয়ে। এতে উচ্চতা, ওজন, বুকের মাপ ঠিক আছে কি-না তা দেখা হবে। বডি ফিটনেস না থাকলে প্রাথমিক ধাপেই বাদ পড়বেন প্রার্থী। এ ক্ষেত্রে পরীক্ষার আগেই চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে শরীর প্রস্তুত করতে হবে। এরপর লিখিত ও অন্যান্য পরীক্ষা শেষে চূড়ান্তভাবে প্রার্থী নির্বাচন করা হবে।

যেসব জেলার নারী প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন : আবেদনকারীদের মধ্যে যোগ্যতার ভিত্তিতে প্রথম ১৯৬৬০০ জন পুরুষ এবং ২ হাজার ৬০০ জন নারী প্রার্থীর আবেদন প্রাথমিকভাবে গ্রহণ করা হবে। দেশের ৬৪ জেলার মধ্যে শুধু ২৭টি জেলার নারী প্রার্থীরা সাধারণ ট্রেডে আবেদনের সুযোগ পাবেন। জেলাগুলো হচ্ছে- দিনাজপুর, নীলফামারী, রংপুর, কুড়িগ্রাম, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, নাটোর, নবাবগঞ্জ, ঝিনাইদহ, গোপালগঞ্জ, খুলনা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, বরিশাল, পটুয়াখালী, বরগুনা, জামালপুর, টাঙ্গাইল, কিশোরগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, নরসিংদী, মুন্সীগঞ্জ, ফরিদপুর, রাজবাড়ী, কুমিল্লা, লক্ষ্মীপুর ও নোয়াখালী।

আবেদন প্রক্রিয়া : প্রার্থীকে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। আবেদন ফরম পাওয়া যাবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ওয়েবসাইটে www.joinbangladesharmy.mil.bd

সূত্র: : bangla.thereport24.com

Be the first to comment

Leave a comment

Your email address will not be published.


*