ঈদে চোখের বিশেষ সাজে

মেকআপ বরাবরই মেয়েদের কাছে প্রিয় একটি বিষয়। আর মেকআপের ক্ষেত্রে চোখের সাজের গুরুত্ব অনেক। চোখ সুন্দর করে সাজাতে পারলেই পুরো মেকআপটাই এক অনন্য সৌন্দর্য স্থাপন করে। সেই সাথে ঈদের সাজকে বরাবরই সবাই একটু বিশেষ করে তুলতে চায়। তাই ঈদের সাজকে আরও আকর্ষণীয় করতে চাই বিশেষ কিছু টিপস। চলুন দেখে নেই, কি কি উপায় অবলম্বন করে চোখের সাজে আকর্ষণীয় লুক আনা সম্ভব হয়।

* সাদা আইলাইনারঃ চোখেকে আকর্ষণীয় করতে সব মেকআপ একসঙ্গে মেলাবেন না। সাদা আইলাইনার সাদাই রাখুন। একটি বোন কালার পেন্সিল নিয়ে চোখের ভেতরের কোনগুলোতে সাবধানে আউটলাইন আঁকুন। সামান্য অফ-হোয়াইট কালার আপনার চোখের রংয়ে উজ্জ্বলতা আনবে। এ মেকআপের মাধ্যমে খুব সহজেই চোখ উজ্জ্বল করে তোলা সম্ভব।

* ডার্ক সার্কেলঃ চোখের ভেতর কালো সার্কেল থাকলে সঠিক ফাউন্ডেশন ব্যবহার করুন। কারণ এর ব্যবহারে ডার্ক সার্কেলগুলো মাস্কের ভেতর চাপা পড়বে। আর তাতেই আপনার চোখ উজ্জ্বল দেখাবে। এজন্য আপনার ত্বকের রঙের অনুরূপ বা খুবই কাছাকাছি রঙের ফাউন্ডেশন পছন্দ করুন।

* শিমারঃ শিমার ব্যবহার করলে চোখের উজ্জ্বলতা অনেকগুণ বেড়ে যায়। এজন্য আই শ্যাডোর পছন্দের শেডের সঙ্গে সামান্য পরিমাণে কিছু স্পার্কল ব্যবহার করুন। চোখের কিনারের দিকে ও ভ্রুর নিচে শিমার ব্যবহার করুন। এজন্য হালকা শেড যেমন আইভরি ও পেল পিংক ভালো কাজে দেবে।

* ভ্রুঃ অনেক মেয়েকে সম্পূর্ণ ভ্রুতে সুন্দর লাগে। আবার অনেক মেয়ের ভ্রু কিছুটা পরিবর্তন করলে ভালো দেখায়। পুরু ভ্রু থাকলে তার প্রভাব চোখেও পড়ে এবং ভারি ও ডার্ক দেখা যায়। তার বদলে হালকা ভ্রুতে উজ্জ্বলতা বাড়বে এবং আপনাকে ভিন্নভাবে দেখাবে।

* কালো আইলাইনারঃ অনেক মেকআপ এক্সপার্টই কালো আইলাইনার ব্যবহার করে চেখের উজ্জ্বলতা বাড়াতে পারেন। এখানে কৌশলটা হলো, খুব চিকন একটি লাইন চোখের উপরের ও নিচের পাতার ভেতরের অংশ দিয়ে টেনে দিতে হবে। এজন্য কিছু অনুশীলন করা প্রয়োজন। হঠাৎ করে শুরু করলে এতে কিছুটা গণ্ডগোল হয়ে যেতে পারে।

* পাপড়িঃ চোখের পাপড়ি বাইরের দিকে নিয়ে কিছুটা উঁচু করে দিন। এতে তাদের বড় ও পূর্ণ দেখাবে। এতে আপনার চোখ খোলা বলে মনে হবে এবং উজ্জ্বল দেখাবে। এজন্য সাবধানে আপনার উপরের পাপড়িগুলো কার্ল করতে হবে সাবধানে। এরপর সেগুলোতে ভালো করে মাসকারা লাগাতে হবে।

এভাবে চোখের অনন্য সাজে ঈদের দিনে হয়ে উঠুন আকর্ষণীয়।

Be the first to comment

Leave a comment

Your email address will not be published.


*