কলকাতার হারে সেরা চারে হায়দরাবাদ

স্পোর্টস ডেস্ক : আইপিএলে রবিবার লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের মাঠে নেমেছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স। এটি ছিল তাদের বাঁচা মরার লড়াই। কিন্তু ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ৯ উইকেটে হেরে গেছে তারা।

এই জয়ে মুম্বাই শীর্ষে থেকে প্লে অফ নিশ্চিত করেছে। ১৪ ম্যাচে ১৮ পয়েন্ট তাদের। সমান পয়েন্টে দুই ও তিনে চেন্নাই সুপার কিংস ও দিল্লি ক্যাপিটালস। আর কলকাতার এই হারে ১২ পয়েন্ট নিয়ে সেরা চারে তাদের সঙ্গী হয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। তাদের সমান পয়েন্ট পেলেও রান রেটে পিছিয়ে থেকে ২০১৫ সালের পর প্রথমবার লিগ পর্বে বিদায় নিলো কলকাতা।

ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে হয় কলকাতাকে। ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার দিনে ক্রিস লিন ও রবিন উথাপ্পা সর্বোচ্চ চেষ্টা করেন। কিন্তু ৭ উইকেটে ১৩৩ রান করে ২০১৪ সালের চ্যাম্পিয়নরা। এরপর রোহিত শর্মার হাফসেঞ্চুরিতে ১৬.১ ওভারে ১ উইকেটে ১৩৪ রান করে মুম্বাই।

শুভমান গিলকে নিয়ে ৪৯ রানের জুটি গড়েন লিন। গিলকে (৯) আউট করে পরের ওভারে লিনকেও মাঠছাড়া করেন হার্দিক পান্ডিয়া। ২৯ বলে ২ চার ও ৪ ছয়ে ৪১ রান করেন লিন।

এরপর উথাপ্পা উপযুক্ত কোনও সঙ্গী পাননি ক্রিজে। লাসিথ মালিঙ্গার পেসে কলকাতার উইকেট হারানোর মিছিল বড় হতে থাকে, যার শেষ হয় জসপ্রীত বুমরাহর জোড়া আঘাতে। উথাপ্পা ৪০ রান করেন। আর কেবল নিতিশ রানা (২৬) দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছান।

মালিঙ্গা সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন মুম্বাইয়ের পক্ষে। ম্যাচসেরা পান্ডিয়া শিকার করেন দুটি উইকেট, বুমরাহও সমান উইকেট নেন।

শীর্ষে ওঠার লড়াইয়ে রোহিত ও কুইন্টন ডি কক ঝড় তোলেন। যদিও পঞ্চাশ ছুঁতে পারেনি মুম্বাইয়ের উদ্বোধনী জুটি। দলীয় ৪৬ রানে ডি কক (৩০) আউট হন। এরপর ক্রিজে থেকে সূর্যকুমার যাদবকে নিয়ে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন রোহিত। ৪৮ বলে ৮ চারে ৫৫ রানে অপরাজিত ছিলেন মুম্বাই অধিনায়ক। ২৭ বলে ৫ চার ও ২ ছয়ে ৪৬ রানে খেলছিলেন সূর্যকুমার।

এদিন আগের ম্যাচে চেন্নাই ৫ উইকেটে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের কাছে হেরে শীর্ষে থাকার সুযোগ হারায়। ফাফ দু প্লেসির ৯৬ ও সুরেশ রায়নার ৫৩ রানের কল্যাণে গতবারের চ্যাম্পিয়নরা ৫ উইকেটে ১৭০ রান করে। লোকেশ রাহুলের ৭১ রানের ঝড়ো ইনিংসে জিতে এবারের আইপিএল শেষ করে পাঞ্জাব। ১৮ ওভারে ৪ উইকেটে ১৭৩ রান করে তারা।

আগামী মঙ্গলবার প্রথম কোয়ালিফায়ারের চেন্নাইয়ের মাঠে নামবে ‍মুম্বাই। পরদিন এলিমিনেটর খেলতে বিশাখাপত্তমে দিল্লির মুখোমুখি হবে হায়দরাবাদ। ক্রিকইনফো