বড় পরাজয়ে বাংলাদেশের আয়ারল্যান্ড সফর শুরু

আয়ারল্যান্ড,

স্পোর্টস ডেস্ক : ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে রোববার আয়ারল্যান্ডের মুখোমুখি হয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। অন্যদিকে সিরিজের আরেক প্রতিদ্বন্দ্বী বাংলাদেশ নেমেছিল প্রস্তুতি ম্যাচে। প্রতিপক্ষ আয়ারল্যান্ড ‘এ’, যা আয়ারল্যান্ড উলভস নামে পরিচিত।

ডাবলিনের দ্য হিলস ক্লাবে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে মাশরাফি বিন মুর্তজা, সৌম্য সরকার, মুস্তাফিজুর রহমানরা এদিন মাঠে নামেননি। টস করতে এসেছিলেন সাকিব আল হাসান। হারার পর আগে ফিল্ডিং করতে হয় বাংলাদেশকে।

টাইগারদের হয়ে বল হাতে সাকিব ছাড়া অন্য সবাই ছিলেন বেশ খরুচে। ১০ ওভার বল করে মাত্র ৩০ রান দিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। নিয়েছেন একটি উইকেটও।

অন্যদিকে ১০ ওভার বল করে ৬৬ রানে তিনটি উইকেট তুলে নেন বিশ্বকাপ স্কোয়াডে জায়গা না পাওয়া তাসকিন রহমান। ৬ ওভার বল করে ৬৩ রান খরচ করে রুবেল হোসেন শিকার করেন দুটি উইকেট। ১০ ওভারে ৬৬ রান দিয়ে একটি উইকেট তুলতে সক্ষম হন ফরহাদ রেজা।

অন্যদিকে ৬ ওভার বল করে ৪৪ রান খরচে এক উইকেট লাভ করেন মেহেদী হাসান মিরাজ। আর পাঁচ ওভারে ৩৫ রান দিয়েও কোনো উইকেট পাননি সাব্বির রহমান।

আইরিশ যুবদলের হয়ে ১০৯ বলে ১১২ রান করেন জেমস ম্যাককালাম। এছাড়া ৯৫ বলে ৯১ রানের ইনিংস খেলেন সিমি সিং। শেষ দিকে ট্রাইওন কেনের ১৩ বলে ২৭ রানের ইনিংসে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৩০৭ রান তুলে নেয় স্বাগতিকরা।

ব্যাট হাতে শুভ সূচনা করেন তামিম ইকবাল-লিটন দাস। দলীয় ৫৬ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ২১ রানে ফেরেন তামিম। ৩৩ বলে ৩টি চার হাকিয়ে শেন গেটকাটের বলে বোল্ড হন এই ওপেনার। অন্যদিকে পরের ওভারেই পিটার চেজের বলে উইকেট রক্ষক নেইল রকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান লিটন। ৩৯ বলে ২৪ রানের এই ইনিংসে ছিল দুটি চার ও একটি ছক্কা।

ক্রিজে থাকা সাকিবের সঙ্গে যোগ দেন মুশফিকুর রহিম। স্কোর বোর্ডে যখন ৮৬ রান ঠিক তখনই আউট হন মুশফিক। ডান-হাতি এই উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান ২৯ বল খেলে ১১ রান তুলে নেন।

দলীয় ৯৭ রানে আউট হন মোহাম্মদ মিঠুন। সিমি সিংয়ের বলে ম্যাককালামের হাতে ক্যাচ তুলে দেয়ার আগে ১৪ বলে দুই বাউন্ডারির সাহায্যে ১৩ রান করেন তিনি।

চতুর্থ উইকেটে ৫৯ রানের জুটি আসে সাকিব ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের ব্যাট থেকে। ১৫৬ রানের মাথায় সাকিব ফেরেন কেনের বলে উইকেটরক্ষক রকের হাতে ক্যাচ দিয়ে। ড্রেসিংরুমে যাওয়ার আগে ৪৩ বলে ৫৪ রানের ইনিংস উপহার দেন। একটি ছক্কার সঙ্গে সাতটি চারও হাঁকিয়েছেন বাম-হাতি এই ব্যাটসম্যান।

মাত্র দুই বল খেলে কোনো রান না করে কেনের শিকার হন সাব্বির রহমান। আরও ১৪ রান যোগ হতে আউট হন মিরাজ। ৬ বলে ৬ রান করে সিমির বলে ফেরেন তিনি।

দলীয় ১৯০ রানে ফিরে যান রিয়াদও। ৪৮ বলে ৩৭ রান করে মাঠ ছাড়েন অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান। তিনটি চার ও এক ছক্কায় ইনিংসটি সাজিয়েছিলেন তিনি। শেষ দিকে ফরহাদ রেজা ১৭ বলে ১৫ রান করেন। এক চার ও এক ছয় মেরে আউট হয়েছেন সিমির বলেই। ২২ বলে ১৪ রান করা তাসকিন হয়েছেন রানআউট। অন্যদিকে ৪ বলে ২ রান করে অপরাজিত ছিলেন রুবেল হোসেন।

সব মিলিয়ে ৪২.৪ ওভারে ২১৯ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ দল। এতে ৮৮ রানের বিশাল জয় পায় আয়ারল্যান্ড উলভস। মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় বিকেল পৌনে চারটায় আয়ারল্যান্ড জাতীয় দলের সঙ্গে মুখোমুখি হবে মাশরাফি বিন মুর্তজা নেতৃত্বাধীন দল।