হায়দরাবাদকে বিদায় করে ফাইনালের পথে দিল্লি

স্পোর্টস ডেস্ক : টান টান উত্তেজনা থাকলো বিশাখাপত্তনমের ম্যাচের শেষ পর্যন্ত। যেখানে শেষ হাসির স্রোত বয়ে গেল দিল্লি ক্যাপিটালস শিবিরে। বুধবার আইপিএলের এলিমিনেটর ম্যাচে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ২ উইকেট হারিয়ে ফাইনালের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রেখেছে তারা।

ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে দিল্লি দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে লড়বে চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে, যারা প্রথম কোয়ালিফায়ারে হেরেছে ফাইনাল নিশ্চিত করা মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে।

সহজ ম্যাচ কঠিন জিতেছে দিল্লি। শেষ ওভারে তো হারই চোখ রাঙাচ্ছিল! তবে কিমো পলের বাউন্ডারিতে ১ বল আগে জয় নিশ্চিত করে তারা। নির্ধারিত ২০ ওভারে হায়দরাবাদ ৮ উইকেটে করেছিল ১৬২ রান। ঋষভ পান্তের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে সহজ জয়ই পেতে যাচ্ছিল, তবে শেষ দুই ওভারের নাটকীয়তায় ১ বল আগে ৮ উইকেট হারিয়ে জয় পায় দিল্লি।

ফ্র্যাঞ্চাইজিটির জয়ের নায়ক পান্ত। এই ব্যাটসম্যান ২১ বলে ২ চার ও ৫ ছক্কায় করেন ৪৯ রান। তবে জয় থেকে ৫ রান দূরে থাকতে তিনি আউট হলে খেলার মোড় যায় পাল্টে। শেষ ওভারে দিল্লির জিততে দরকার পড়ে ওই ৫ রানই। কিন্তু খলিল আহমেদের চমৎকার বোলিংয়ে প্রথম ৪ বলে দিল্লি নিতে পারে ৩ রান। তাতে শঙ্কার মেঘ জন্মালেও পঞ্চম বলে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে জয় নিশ্চিত করেন কিমো পল (৫*)।

এর আগে ওপেনিংয়ে জয়ের ভিত গড়ে যান হাফসেঞ্চুরিয়ান পৃথ্বি শ। ৩৮ বলে ৬ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় করেন তিনি ৫৬ রান। শিখর ধাওয়ান করেন ১৭ রান।

হারলেও বল হাতে আরেকটি চমৎকার দিন কাটিয়েছেন রশিদ খান। আফগান স্পিনার ৪ ওভারে মাত্র ১৫ রান দিয়ে পেয়েছেন ২ উইকেট। তার মতো ২ উইকেট শিকার ভুবনেশ্বর কুমার ও খলিল আহমেদের।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই হায়দরাবাদ হারায় ঋদ্ধিমান সাহার (৮) উইকেট। আরেক ওপেনার মার্টিন গাপটিল (১৯ বলে ৩৬) অবশ্য ছিলেন দুর্দান্ত। ওয়ান ডাউনে নামা মনিশ পান্ডে ৩৬ বলে করেন ৩০। এরপর কেন উইলিয়ামসনের ব্যাট থেকে আসে ২৭ বলে ২৮ রান।

তারা ধীরগতিতে ব্যাট করলেও আক্রমণাত্মক ছিলেন ১১ বলে ২ চার ও ২ ছক্কায় ২৫ রান করা বিজয় শঙ্কর এবং ১৩ বলে ৩ চার ও ১ ছক্কায় ২০ রান করা মোহাম্মদ নবী।

দিল্লির সবচেয়ে সফল বোলার কিমো পল। ক্যারিবিয়ান পেসার ৩২ রান দিয়ে পেয়েছেন ৩ উইকেট। ২ উইকেট নিয়েছেন ইশান্ত শর্মা। ক্রিকইনফো