‘বিশ্বকাপে প্রতিপক্ষের জন্য অশুভ সংকেত স্মিথ-ওয়ার্নার’

স্পোর্টস ডেস্ক : বল টেম্পারিং-কাণ্ডে এক বছরের নির্বাসন কাটিয়ে জাতীয় দলে ফিরেছেন স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার। আসন্ন ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে মাঠ মাতাবেন তারা। অজি দলে তাদের ফেরা বিশ্বমঞ্চে অন্য দলগুলোর জন্য অশুভ সংকেত বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির বিশ্বকাপজয়ী সাবেক অধিনায়ক স্টিভ ওয়াহ।

স্মিথ-ওয়ার্নারের অবর্তমানে খেই হারিয়ে ফেলেছিল অস্ট্রেলিয়া। গভীর অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়েছিল দলটি। ২০১৮ সালে খেলা ১৮ ওয়ানডের মধ্যে মাত্র তিনটিতে জেতে তারা। তবে বিশ্বকাপের আগমুহূর্তে স্বরূপে ফিরেছেন অজিরা। সবশেষ দুটি ওয়ানডে সিরিজে স্বাগতিক ভারত ও পাকিস্তানকে হারিয়েছেন তারা।

দলের শক্তি দ্বিগুণ করতে ক্রিকেটের বৈশ্বিক আসরের আগে দলে ফেরানো হয়েছে স্মিথ-ওয়ার্নারকে। ব্যাট হাতে দুজনই রয়েছেন ফর্মের মগডালে। ১২ ইনিংসে ৬৯২ রান নিয়ে সদ্য সমাপ্ত আইপিএলে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন ওয়ার্নার। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে গা গরমের ম্যাচে ৮৯ ও ৯১ রানের দুটি অপরাজিত ইনিংস খেলেছেন স্মিথ। তারা ফর্মে থাকলে বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া অন্যান্য দলের জন্য হুমকি হবে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন ওয়াহ।

তিনি বলেন, নিশ্চয়ই অস্ট্রেলিয়ার সামর্থ্য সম্পর্কে প্রতিপক্ষরা অবগত। গেল ১২ মাসে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটে অশান্তি বিরাজ করেছে। তবে এখন তা দূর হয়েছে। আমাদের সেরা খেলোয়াড় স্মিথ-ওয়ার্নারকে আমরা দলে নিয়েছি। এটা অন্য দলগুলোর জন্য অশুভ সংকেত।

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে হট ফেভারিট নয় অস্ট্রেলিয়া। তবে দলটির সামর্থ্য সম্পর্কে জানে অন্যান্য দল। তাতেই ভিত তারা। অজিদের হয়ে ৩২৫ ওয়ানডে খেলা ওয়াহ বলেন, এবারের টুর্নামেন্টে অস্ট্রেলিয়া ফেভারিট নয়। তবে এটি এমন একটি দল যাদের ভয় পেতে অন্য দলগুলো বাধ্য। তারা যেকোনো কিছু করার সামর্থ্য রাখে। তাই আমি মনে করি, টুর্নামেন্টে অনেক দূর যাবে ডিফেন্ডিং বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

Be the first to comment

Leave a comment

Your email address will not be published.


*