অত্যাচারের ভয়ানক যন্ত্র গ্রীক ষাঁড়

এই ধাতুর ষাঁড়টি ছিলো অত্যাচারের সবচেয়ে ভয়ানক পদ্ধতি। নিপিড়ীত ব্যক্তিকে ষাঁড়ের পেটের ভেতর রেখে ঠিক তার নিচের দিকে আগুন জালিয়ে দেওয়া হতো। এতে করে ধাতুর ষাড়টি গরম হয়ে যেতো। নিরীহ ব্যক্তিদের কী অবস্থা হতো এটা বোধহয় কখনো লিখে প্রকাশ করা সম্ভব নয়।
নির্যাতনের ধাপ।
১/ ব্যক্তিকে ষাঁড়ের ঠিক উপরের একটি দরজা দিয়ে প্রবেশ করানো হতো।
২/ তারপর দরজা বন্ধ করে পেটের নিচে আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া হতো।
৩/ ষাঁড়টি ওভেনের রুপে ধীরে ধীরে উত্তপ্ত হতে থাকে আর ব্যক্তিটি বারবিকিউ হওয়ার যাত্রায় চিৎকার করতে থাকে।
৪/ শিকারী ব্যক্তি মরার আগ পর্যন্ত এই কাজ চলতে থাকতো।
আন্দালুসিয়ানদের বিরুদ্ধে স্পেনের ক্যাথলিক অনুসন্ধান কালে অত্যাচারের এই ভয়ংকর পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়েছে। স্পেনের রাজারা স্পেনে মুসলমান নিধন করার জন্য প্রিয় উপায় ছিলো এটি।
“ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়ানক অত্যাচার”