ফ্যাশন দুনিয়ায় নতুন ট্রেন্ড ‘কফি সানগ্লাস’, সাধ্যের মধ্যে দাম!

বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় পানীয় কফি। জরিপের তথ্যমতে, বিশ্বজুড়ে গড়ে প্রতিদিন প্রায় ২৫ কোটি কাপ কফি পান করা হয়। ইতিমধ্যেই কফির বর্জ্য দিয়ে তৈরি হচ্ছে ফার্নিচার, কাপ, প্রিন্টিংয়ের জন্য কালির মতো নানা জিনিস। এবার কফি দিয়ে তৈরি হচ্ছে চশমার ফ্রেম! যাকে বলা হচ্ছে ‘কফি সানগ্লাস’।

অবিশ্বাস্য এই কাজটি করে দেখিয়েছেন ইউক্রেনের ব্যবসায়ী ম্যাক্সিম হ্যাভ্রিলেঙ্কো। গত ১৫ বছর ধরে ম্যাক্সিমের পরিবার আইওয়ের ব্যবসার সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছেন। ছোটবেলা থেকেই ব্যবসায় বাবার সঙ্গী ছিলেন ম্যাক্সিম।

বাবার পর এখন একাই ব্যবসার দায়িত্ব সামলান তিনি। আগাগোড়াই চিরাচরিত চশমায় নতুনত্ব আনার ব্যাপারে চিন্তা-ভাবনা করতেন ম্যাক্সিম। সেই ভাবনা-চিন্তা থেকেই পরিবেশবান্ধব চশমার ফ্রেম তৈরির কথা মাথায় আসে তাঁর।

ম্যাক্সিম জানিয়েছেন- প্রথমে দারুচিনি দিয়ে চশমার ফ্রেম তৈরি করতে গিয়েছিলেন তিনি। তবে তাতে সফল হননি। তারপর কফির কথা মাথায় আসতেই কেল্লাফতে! কফির গুঁড়ো দিয়ে তৈরি করে ফেললেন চশমার ফ্রেম।

বীজ থেকে কফি তৈরি হওয়ার পর যে গুঁড়োটা থেকে যায় সেটা ব্যবহার করা হয় চশমার ফ্রেম তৈরি করতে। কফির গুঁড়োকে ফ্ল্যাক্স এবং কিছু ভেষজ তেলের সঙ্গে মিশিয়ে মন্ড তৈরি করে ছাঁচে ফেলা হয়। তারপর কম্পিউটারের মাধ্যমে এই ছাঁচ কেটে চশমার ফ্রেম তৈরি করা হয়।

আধুনিক যুগের ফ্যাশানের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এই ফ্রেমের ডিজাইন তৈরি করা হয়। প্লাস্টিকের তুলনায় কফি দিয়ে তৈরি এই চশমার ফ্রেম ১০০ শতাংশ পুনর্ব্যবহারযোগ্য। চলতি বছরে ১০ হাজার ফ্রেম তৈরি করার লক্ষ্য ম্যাক্সিমের কোম্পানির।

২০২১ সালে এই লক্ষ্যমাত্রা বেড়ে দাঁড়াবে ১ লাখের কাছাকাছি। একটি ফ্রেম কিনতে প্রায় ৯০ ডলার খরচ করতে হবে। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় প্রায় সাড়ে ৭ হাজার টাকা!