শুরু হচ্ছে দেশীয় অনলাইন শপিং উৎসব

দেশের টাকা দেশেই থাকুক’ এই স্লোগান নিয়ে দেশের ১৪টি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের যৌথ উদ্যোগে শুরু হচ্ছে ‘১০-১০ দেশীয় অনলাইন শপিং উৎসব।’ আজ (৯ অক্টোবর) দুপুর ১১টায় অনলাইনে অনুষ্ঠিত হয় এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উৎসব উদ্বোধন করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

ডাক ও টেলিযোযোগ মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ৪র্থ শিল্প বিপ্লবে প্রবেশ করছি। সকল প্রচলিত ব্যবসা একদিন ডিজিটাল কমার্সে রূপান্তরিত হবে। ই-কমার্স সেক্টরের আজকের উন্নতি এবং গ্রাহকদের আস্থা অর্জন করার ক্ষেত্রে মূল ভূমিকা কিন্তু দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর। তারাই ছোট ছোট উদ্যোগ নিয়ে ডিজিটাল কর্মাস শুরু করেছে। যখন অনেকে এটা নিয়ে সন্দিহান ছিলেন। এর পেছনে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রেখেছে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ। আপনাদের উদ্যোগগুলোই দেশের ই-কমার্সকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। আমি বিশ্বাস করি বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান এবং বাংলাদেশের তরুণরাই দেশকে বদলে দেবে।’ বক্তব্যের পর তিনি অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করেন ও দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর সাফল্য কামনা করেন।
সভাপতির বক্তব্যে ই-ক্যাবের প্রেসিডেন্ট শমী কায়সার বলেন, ‘দেশীয় কোম্পনিগুলো সেবা দিতে এবং গ্রাহক সেবার মান উন্নত করতে পারস্পরিক সহযোগিতার ভিত্তিতে ‘১০-১০ দেশীয় অনলাইন শপিং উৎসব’ গ্রাহকের আস্থার ক্ষেত্রে নতুন মাত্রা যোগ করবে এবং দেশের ই-কমার্সকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’
শুভেচ্ছে বক্তব্যে ই-ক্যাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট সাহাব উদ্দীন শিপন বলেন, ‘মূলত দেশীয় ই-কমার্সের উন্নয়ন ও গ্রাহক পর্যায়ে উন্নত সেবা নিশ্চিত করতে দেশীয় ১৪টি প্রতিষ্ঠান এক হয়ে আগামী ১০ অক্টোবর থেকে ১০ দিনের জন্য বিশেষ ক্যাম্পেইন করবে। এ সম্পর্কিত তথ্য পাওয়া যাবে tenten.com.bd এ। এবারের আয়োজনের আয়োজক পার্টনার হিসাবে আছে ই-ক্যাব আর পেমেন্ট পার্টনার হিসাবে থাকছে বিকাশ।’

শুরু হচ্ছে দেশীয় অনলাইন শপিং উৎসব
লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৭:৩০, অক্টোবর ০৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:১১, অক্টোবর ০৯, ২০২০

‘দেশের টাকা দেশেই থাকুক’ এই স্লোগান নিয়ে দেশের ১৪টি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের যৌথ উদ্যোগে শুরু হচ্ছে ‘১০-১০ দেশীয় অনলাইন শপিং উৎসব।’ আজ (৯ অক্টোবর) দুপুর ১১টায় অনলাইনে অনুষ্ঠিত হয় এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উৎসব উদ্বোধন করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার

ডাক ও টেলিযোযোগ মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ৪র্থ শিল্প বিপ্লবে প্রবেশ করছি। সকল প্রচলিত ব্যবসা একদিন ডিজিটাল কমার্সে রূপান্তরিত হবে। ই-কমার্স সেক্টরের আজকের উন্নতি এবং গ্রাহকদের আস্থা অর্জন করার ক্ষেত্রে মূল ভূমিকা কিন্তু দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর। তারাই ছোট ছোট উদ্যোগ নিয়ে ডিজিটাল কর্মাস শুরু করেছে। যখন অনেকে এটা নিয়ে সন্দিহান ছিলেন। এর পেছনে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রেখেছে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ। আপনাদের উদ্যোগগুলোই দেশের ই-কমার্সকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। আমি বিশ্বাস করি বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান এবং বাংলাদেশের তরুণরাই দেশকে বদলে দেবে।’ বক্তব্যের পর তিনি অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করেন ও দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর সাফল্য কামনা করেন।
সভাপতির বক্তব্যে ই-ক্যাবের প্রেসিডেন্ট শমী কায়সার বলেন, ‘দেশীয় কোম্পনিগুলো সেবা দিতে এবং গ্রাহক সেবার মান উন্নত করতে পারস্পরিক সহযোগিতার ভিত্তিতে ‘১০-১০ দেশীয় অনলাইন শপিং উৎসব’ গ্রাহকের আস্থার ক্ষেত্রে নতুন মাত্রা যোগ করবে এবং দেশের ই-কমার্সকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’
শুভেচ্ছে বক্তব্যে ই-ক্যাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট সাহাব উদ্দীন শিপন বলেন, ‘মূলত দেশীয় ই-কমার্সের উন্নয়ন ও গ্রাহক পর্যায়ে উন্নত সেবা নিশ্চিত করতে দেশীয় ১৪টি প্রতিষ্ঠান এক হয়ে আগামী ১০ অক্টোবর থেকে ১০ দিনের জন্য বিশেষ ক্যাম্পেইন করবে। এ সম্পর্কিত তথ্য পাওয়া যাবে tenten.com.bd এ। এবারের আয়োজনের আয়োজক পার্টনার হিসাবে আছে ই-ক্যাব আর পেমেন্ট পার্টনার হিসাবে থাকছে বিকাশ।’

প্রতিটি ই-কমার্স সাইট আগামী ১০ দিন নানা ধরনের অফার দিচ্ছে তাদের অনলাইন কাস্টমারদের জন্য। বিকাশের মাধ্যমে পেমেন্ট করলেই পাওয়া যাবে ১০% ইনস্ট্যান্ট ক্যাশব্যাক। এছাড়া পাওয়া যাবে সারাদেশে ফ্রি ডেলিভারি। থাকবে ৫০% এর বেশি ডিসকাউন্ট ভাউচার, একটি কিনলে একটি ফ্রি, ফ্ল্যাশ সেলস এবং আরও আকর্ষণীয় অফার। অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে লাইভ ভিডিও প্রোগ্রাম করে বিভিন্ন গিফট ও আকর্ষণীয় অফার দেবে কাস্টমারদের।
প্রিয়শপ এর সিইও আশিকুল আলম খান এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন চালডাল ডট কম এর সিইও জিয়া আশরাফ, পিকাবো ডট কম এর মরিন তালুকদার এবং এক্সট্রা এর ফাউন্ডার মঞ্জুরুল আলম মামুন।
উৎসবে অংশ নেওয়া প্রতিষ্ঠানগুলো হলো রকমারি, আজকের ডিল, চালডাল, ডায়বেটিক স্টোর, প্রিয়শপ, পিকাবো, দ্যামল, বাংলা শপরার্স, স্টাইলিন, এক্সট্রা, লেইসফিতা, বিডিশপ, খাসফুড ও অথবা ডট কম।