চুলের ধরন অনুযায়ী বেছে নিন হেয়ার প্যাক

শুষ্ক চুল

শুষ্ক ও রুক্ষ চুলের জন্য হাইড্রেটিং হেয়ার মাস্ক উপযুক্ত। এতে চুলের পুষ্টি বাড়বে পাশাপাশি শুষ্কতা দূর হবে। হেয়ার মাস্ক ব্যবহারের ফলে চুলের বৃদ্ধিও ভাল হয়। আপনি কন্ডিশনার এবং গ্লিসারিন যুক্ত মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন। এক্ষেত্রে মেথি ও নারকেল তেল বেশ কার্যকর। মেথি ভিজিয়ে রেখে বেটে নিন। নারকেল তেল মিশিয়ে চুলে লাগান। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন।

কোঁকড়া চুল

কোঁকড়ানো চুল সাধারণত শুষ্ক হয়। এজন্য এ ধরনের চুলের জন্য হেয়ার প্যাক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সপ্তাহে একবার অন্তত হেয়ার মাস্ক লাগানো উচিত। এতে চুল উজ্জ্বল হয়। এক্ষেত্রে ড্যামেজ রিপিয়ার রিকন্সট্রাকশন হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন।

পাতলা চুল

পাতলা চুলের জন্য লাইট ওয়েট হাইড্রেটিং জোজোবা অয়েল উপযুক্ত। পাতলা চুল যদি বেশি শুষ্ক হয়, তবে হেয়ার কন্ডিশনার মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন। পাতলা চুলে পুষ্টি জোগাতে নারকেল তেলও ব্যবহার করতে পারেন।

তৈলাক্ত চুল

তৈলাক্ত চুলের যত্ন নেওয়া একটু কঠিন। এই ধরনের চুলে আর্দ্রতার প্রয়োজন হয় না। এক্ষেত্রে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যুক্ত হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়াও চুলের গোড়ায় নারকেল তেল লাগান এবং গরম পানিতে তোয়ালে ভিজিয়ে নিংড়ে মাথায় জড়িয়ে রাখুন। আধা ঘণ্টা পর শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। ব্যবহার করতে পারেন ডিমের হেয়ার প্যাকও।