এই নিয়মে পাঁচদিন আলু খেলেই কমবে ওজন

ওজন কমানোর কথা আসলেই প্রথমেই সবাই ভাত, আলু এবং কার্বোহাইড্রেট খাবার বাদ দিয়ে দেন। অনেকেই ভাবেন আলুই বুঝি মেদবৃদ্ধির কারণ। তবে আলু কিন্তু কমবেশি সবারই পছন্দের একটি খাবার। দামে সস্তা এবং সহজলভ্য হওয়ার সারাবিশ্বে এর যথেষ্ট জনপ্রিয়তা রয়েছে।

ফ্রেঞ্চ ফ্রাই থেকে শুরু করে সুস্বাদু পাকোড়া, আলু টিকিয়া, ভর্তাসহ নানা মুখরোচক খাবার। এসব খাবার স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর হলেও, গবেষণায় দেখা গিয়েছে, আলুর মাধ্যমেই খুব ভালো ফল পেতে পারেন। পর পর পাঁচদিন নিয়ম মেনে আলু খান,জাদুর মতোই কমবে ওজন। জেনে নিন নিয়মগুলো-

টানা পাঁচ দিন পেট ভরে আলু সিদ্ধ খেতে হবে।

এই সময়ে অন্য কোনো খাবারই খাওয়া যাবে না। মানে ভাত, রুটি বা অন্যান্য ভারী খাবার পুরোপুরি বাদ।

এর সঙ্গে খুব দরকার হলে সামান্য পরিমাণে লবণ মিশিয়ে খেতে পারেন।

চা, কফি, জল পান করা যাবে। তবে কোনো ভাবেই দুধ নয়।

এই ক’টা দিন কোনো ভাবেই ভারী ব্যায়াম করা যাবে না। হালকা হাঁটাহাঁটি করতে পারেন।

নিত্য ব্যবহারের ওষুধ খেতেই পারেন। কোনো ধরনের ফুড সাপ্লিমেন্ট নেয়া যাবে না।

তবে মনে রাখতে হবে আলুর সুস্বাদু তরকারি, মশলাদার পদ খেলে কিন্তু হবে না। বিশেষজ্ঞদের মতে সাধারণ সিদ্ধ আলু খেয়েই ডায়েট কন্ট্রোল করতে হবে। আলু শুধু ওজন কমায় না সেই সঙ্গে শরীরকে চাঙ্গা রাখতেও সাহায্য করে। কোমরের মেদ ঝরানোর জন্য আলুর ডায়েট খুব উপকারী।

তবে তার জন্য উপরের নিয়মগুলো মানতে হবে। এইসময় স্বাস্থ্যকর খাদ্যতালিকা অনুসরণ করুন। সেইসঙ্গে জাঙ্ক ফুড খাওয়া থেকে দূরে থাকুন। তবেই আলু খেলে ওজন বাড়বে না বরং কমাতে সাহায্য করে।

আলুতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে যা ওজন কমাতে ভূমিকা রাখে। গবেষকদের দাবি, শুধু সিদ্ধ আলু খেয়ে রোগা হওয়ার চেষ্টা করলে অনেক সুবিধা পাওয়া যায়। প্রথমত আলু সহজপাচ্য। অল্প আলুতেই পেটও ভরে যায়। ফলে বেশি খাওয়ার দরকার পরে না।