পেয়ারা পাতার যত স্বাস্থ্য উপকারিতা

পেয়ারা অনেকেরই পছন্দের ফল। এটি স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত উপকারী। তাই অনেক চিকিৎসকও পেয়ারা খাওয়ার কথা বলেন। তবে কেবলমাত্র পেয়ারাই নয়, এর পাতাও স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী, যা অনেকেরই জানা নেই। পেয়ারা পাতায় থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, পুষ্টিকর উপাদান এবং ওষুধি গুণাগুণ স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সাহায্য করে। পেয়ারা পাতা থেকে যেসব স্বাস্থ্য উপকারিতা পাওয়া যায়-

১. দাঁতে ব্যথা কমাতে পেয়ারা পাতার পানি খুব উপকারী। পেয়ারা পাতার পানি দিয়ে কুচিকুচি করলে দাঁতে ব্যথায় আরাম পাওয়া যায়। এছাড়া, কফ ও ব্রঙ্কাইটিস দূর করতেও পেয়ার পাতার চা বেশ কার্যকর।

২. পেটের ব্যথা কমাতে পেয়ারা পাতা বেশ কার্যকর। এতে থাকা অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান পেট ব্যথা কমাতে ভূমিকা রাখে। কারও পেটে ব্যথা হলে পেয়ারার কয়েকটি পাতা নিয়ে ভালোভাবে পরিষ্কার করে পানিতে ফুটিয়ে তা পান করতে পারেন। এতে দ্রুত পেটে ব্যথা থেকে স্বস্তি পাওয়া যাবে।

৩. ওজন কমাত পেয়ারা পাতার রস উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখে। এই পাতা চর্বি কমাতে কাজ করে। সেই সঙ্গে ডায়রিয়া থেকে মুক্তি দেয়। ডায়রিয়ায় ভুগলে পেয়ারা পাতার কাড়া তৈরি করে পান করতে পারেন। পেয়ারা পাতার অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য পেটের সমস্যা রোধে বেশ ভালো কাজ করে।

৪. অনেকেই কোমর, ঘাড় বা পিঠে ব্যথা কিংবা অস্থিসন্ধির ব্যথায় ভোগেন। যাদের এ ধরনের সমস্যা আছে তারা পেয়ারা পাতার পেস্ট ব্যবহার করতে পারেন। এটি প্রয়োগ করলে ব্যথা থেকে দ্রুত মুক্তি পাওয়া যায়।

৫. ব্রণের সমস্যা দূর করতে পেয়ারা পাতার পানি আক্রান্তস্থলে ব্যবহার করতে পারেন।

৬. চুল পড়া কমাতে পেয়ারার পাতা পানিতে ফুটিয়ে ঠান্ডা করে মাথায় ভালোভাবে ম্যাসাজ করতে পারেন। এতে চুল পড়া কমবে।

৭. ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য পেয়ারা খাওয়া খুবই উপকারী। কারণ এটি রক্তে শর্করার পরিমাণ ঠিক রাখে। তবে এর পাশাপাশি ডায়াবেটিস রোগীরা পেয়ারা পাতার চা পান করতে পারেন। এটিও রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে কাজ করে।