এবারও সারাগামাপাতে ‘পক্ষপাত করে’ চ্যাম্পিয়ন, ক্ষুব্ধ শ্রোতারা

ভারতের সারেগামাপার বাংলা সংস্করণের মঞ্চে ফের বিতর্ক। ফের অনাকাঙ্ক্ষিত চ্যাম্পিয়নের ঘটনা! আর এই নিয়ে পশ্চিমবঙ্গ, আগরতলার সোশ্যাল প্ল্যাটফরম উত্তাল। শুধু তাই নয় ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া কণ্ঠশিল্পী ইমন চক্রবর্তীর শীষ্য হওয়ায় চ্যাম্পিয়ন অর্কদীপ মিশ্র বিশেষ সুবিধা পেয়েছেন বলে অভিযোগ। আর চ্যাম্পিয়নের যোগ্য ত্রিপুরার নীহারিকাকে বঞ্চিত করা হয়েছে। এমন সব অভিযোগে নেটিজেনদের তোপের মুখে পড়েছেন সারাগামাপা ও ইমন চক্রবর্তী।

রবিবার সারেগামাপা ২০২০ বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। অর্কদীপ মিশ্রর হাতেই উঠেছে এবারের চ্যাম্পিয়ানস ট্রফি। যদিও এ নিয়ে তর্ক-বিতর্ক জারি রয়েছে। নেটিজেনদের একটা বড় অংশের মতেই নীহারিকা বা আনুশকা অনেক বেশি যোগ্য এই ট্রফির। ইমন চক্রবর্তীর টিমের সদস্য অর্কদীপ, তবে এটাই শেষ কথা নয়, তিনি ইমনের ‘গুরুভাই’ও বটে। অর্কদীপের হাতে সেরার ট্রফি ওঠায় স্বভাবতই খুশি ইমন। কারণ এই জয় তারও।

নেটিজেনরা বলছেন, ‘একদম জাজমেন্ট ঠিক হয়নি, নিহারীকাই বেশি যোগ্য ছিল’।

আরিয়ান ঘোষ এটা একেবারেই ভুল জাজমেন্ট হলো। নীহারিকা, আনুশকা অনেক অনেক বেশি যোগ্য ছিল। “সা রে গা মা পা বাংলা”-র আজ পর্যন্ত সব কটা সিজন এর সব থেকে বেঠিক জাজমেন্ট হয়ে থাকবে এটা। খুবই শকিং এটা।

একজন লিখেছেন, ‘আমার মতে, যেখানে নীহারিকা শুরু থেকেই এত সুন্দর পারফরমেন্স করে এসেছে, সেখানে কিভাবে যে সেকেন্ড হলো, আমি বুঝতে পারছি না। আর অবাক করা বিষয়, আনুশকা কোনো স্থানই পেল না, অথচ ওই মেয়েটাই বরাবর নিজের প্রতিভা দিয়ে বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করে এসেছে। বিদিপ্তাকে নিয়ে কোনো কথা বলব না, কারণ বিদিপ্তার গলা খুব মিষ্টি’।

আরেকজন লিখেছেন, ‘একদম ঠিক হয়নি বিচারকদের সিদ্ধান্ত, নিহারিকা সবচেয়ে ভালো ও প্রথম হলে ঠিক হতো। এছাড়া বিদিপ্তা , আনুশকা এরাও অনেক ভালো গান করে শুধু তাই নয় এরা সব রকমের গান এবং যথেষ্ট কঠিন গান গেয়েছে পুরো সিজেনটাতে আর অর্কদ্বীপ এক ই গান গেয়ে প্রথম হয়ে গেল। একদম ভালো লাগে নি খুব খারাপ লেগেছে।’

জাকির হোসেন নামের একজন লিখেছেন, ‘নীহারিকার প্রতি অন্যায় হয়েছে, অবশ্যই সে ভার্সেটাইল গায়িকা। ম্যাডাম সম্মান রেখে বলছি আপনি অনেক বড় মাপের শিল্পী। ফাইনালে আপনার অতিরিক্ত এক্সপ্রেশন দৃষ্টিকটু লেগেছে। অর্কর পাশে হুট করে দাঁড়িয়ে পড়াটা শোভনীয় হয়নি। আপনার কাছে প্রত্যাশা অনেক বড়।’

সুরজিৎ ঘোষ লিখেছেন, ‘একদম বাজে সিদ্ধান্ত , আর বিচারকদের লাফালাফি দেখে এতো খারাপ লাগছিলো। আমার দেখা সবথেকে বাজে সংগীত রিয়ালিটি শো।’

টেলিভিশনের পর্দায় অর্কদীপের হাতে ট্রফি উঠবার পড়েই ইমন ফেসবুকের দেওয়ালে লেখেন, ‘অর্কদীপ মিশ্র, আমি তোমায় নিয়ে গর্বিত’। অন্যদিকে মেন্টর তথা, গুরুবোন ইমনকে নিয়ে অর্কদীপ এক সাক্ষাত্কারে বলেন, ‘এটা একটা দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা। আমি অনেক কিছু শিখেছে ইমনদির কাছে, উনি সত্যিকারের অনুপ্রেরণা। আমার যখনই দরকার পড়েছে উনি পাশে থেকেছেন’।

দীর্ঘ ছয় মাসের সুরেলা সফর শেষে দর্শকরা পেল জি বাংলা সারেগামাপা ২০২০-র বিজয়ীকে। এই জনপ্রিয় রিয়ালিটি শো জিতেছে নৈহাটির ছেলে অর্কদীপ মিশ্র। টিম ইমনের এই প্রতিযোগির হাতেই উঠল সেরার শিরোপা। কয়েক সপ্তাহ আগেই শ্যুটিং শেষ হয়েছিল সারেগামাপা-র গ্র্যান্ড ফিনালের, রবিবার রাতে সম্প্রচারিত হয় সেই এপিসোড।

সারেগামাপা-র শেষ ছয়ে চলতি সিজনে জায়গা করে নিয়েছিল ছয়জন- অর্কদীপ মিশ্র, রক্তিম চৌধুরী, বিদীপ্তা চক্রবর্তী, জ্যোতি শর্মা, নীহারিকা নাথ এবং আনুশকা পাত্র। রবিবারের এপিসোডেও হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর শেষ তিনে জায়গা করে নেয়- অর্কদীপ, নীহারিকা এবং বিদীপ্তা। দুই নারী প্রতিযোগিকে হারিয়ে শেষ হাসি হাসলেন অর্কদীপ। দ্বিতীয় স্থানে শেষ করেন নীহারিকা এবং সেকেন্ড রানার আপের তকমা নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় বিদীপ্তাকে।

লেখেন, ‘আপনারা কী দেখে অর্কদীপকে চ্যাম্পিয়ান করলেন একটু বলবেন? তাহলে সুবিধা হতো আমার। আনুশকা কোনো পজিশন পেল না, নীহারিকা অর্কদীপের যে অনেক এগিয়ে’। অপর একজন ক্ষোভের সুরে লিখেছেন, পরের বছর থেকে আর সারেগামাপা দেখব না। কিভাবে অর্কদীপ চ্যাম্পিয়ান হলো। আমি মানতে পারব না নীহারিকা বা বিদীপ্তা কিংবা আনুশকার চেয়ে ও বেশি যোগ্য। আমার তো মনে হয় রক্তিম, রাহুল, জ্যোতিও অর্কদীপের চেয়ে অনেক বেশি ভার্সাটাইল গায়ক’।

এসবের বাইরে অসংখ্য শ্রোতা ভক্ত নীহারিকা উদ্দেশ করে লিখছেন, ‘আমাদের চোখে তুমিই চ্যাম্পিয়ন’।