লন্ডনে দরজা ভেঙে তিন দিন পর অর্থমন্ত্রীর জামাতার লাশ উদ্ধার

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের বড় মে‌য়ে কাসফি কামালের স্বামী মো. দিলশাদ হোসেনের মরদেহ লন্ড‌নে নিজ বাসা থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃত্যুকালে দিলশাদের বয়স হয়েছিল ৪৬ বছর।

শুক্রবার বাসার তালা ভেঙে অর্থমন্ত্রীর জামাতার লাশ উদ্ধার করে লন্ডন পুলিশ। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি মারা গেছেন বলে প্রাথ‌মিকভা‌বে ধারণা কর‌ছে পু‌লিশ।

এ সময় কাশফি কামাল সন্তানদের নিয়ে দেশে ছিলেন। এক সময়ের ব্যবসায়ী পার্টনার মৃদুল দাশ জানান, তিন দিন ধরে দিলশাদকে ফোনে পাচ্ছিলেন না দেশে থাকা তাঁর স্ত্রী। সাধারণত প্রতিদিনই তিনি দেশে স্ত্রী সন্তানদের সঙ্গে যোগাযোগ করতেন।

কোনো ধরনের যোগাযোগ করতে না পেরে লন্ডনে মৃদুল দাশকে ফোন করে খোঁজ নিতে জানান। দ্রুত যোগাযোগের জন্য কাছে বসবাস করা দিলশাদের পারিবারিক বন্ধু শাহীনের সঙ্গে যোগাযোগ করেন তারা। শাহীন শুক্রবার জুম্মার নামাজ পড়ে দিলাশাদের বাসায় গিয়ে দেখেন ভেতরে আলো জ্বলছে কিন্তু কেউ সাড়া দিচ্ছে না।
শাহীন মৃদুল দাশকে ফোন করে পুলিশ ডাকার পরামর্শ দেন। পুলিশ এসে দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে বিছানায় দিলশাদের লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। পুলিশ শাহীনকে জানিয়েছে, তাঁদের ধারণা, কমপক্ষে ২৪ ঘণ্টা আগে দিলশাদ মৃত্যুবরণ করেছেন।

বাসা থেকে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ মর্গে পাঠিয়েছে বলে জানিয়েছেন মৃদুল দাশ।

মৃদুল দাশ জানান, দিলদশাদেরও স্ত্রী সন্তানদের সঙ্গে দেশে থাকার কথা ছিল, কিন্তু ব্রিটিশ পাসপোর্ট সংক্রান্ত কিছু কাজে তিনি লন্ডনে রয়ে গিয়েছিলেন। এবং গত কয়েকদিন ধরেই তিনি ঘুমের মধ্যে শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যায় ভুগছিলেন এবং এর জন্য চিকিৎসা ও নিচ্ছিলেন দিলাশাদ।

দীর্ঘদিন লন্ডনে থাকলে ও কাসফিয়া কিংবা দিলশাদ বাঙালি কমিউনিটির সঙ্গে খুব একটা সংশ্লিষ্ট ছিলেন না। তার মৃত্যু সংবাদে সাধারণ মানুষজন জানতে পেরেছেন যে তাঁরা দীর্ঘদিন থেকে লন্ডনে বসবাস করছেন।

উল্লেখ্য, দিলাশাদ, তিনি ঢাকার সাবেক মেয়র মোহাম্মদ হানিফের ভা‌গ্নে ও সাঈদ খোকনের ফুফাত ভাই।