হালদা নদীর নিরাপত্তায় নৌ-থানা নির্মাণ হচ্ছে

দেশের একমাত্র প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন কেন্দ্র হালদা নদীর নিরাপত্তায় নৌ-থানা নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি হালদা নদী পরিদর্শন করেছেন। নৌ-থানা স্থাপনের জন্য একটি সম্ভাব্য স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। নদীর রেড জোনের আটটি পয়েন্টে সিসিটিভি ক্যামেরা বসানো হয়েছে।

নৌ-পুলিশ জানায়, হালদা নদীতে একটি নৌ-থানা স্থাপনের জন্য চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন ও নৌ-পুলিশের পক্ষ থেকে পৃথক প্রস্তাবনা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। প্রস্তাবের আলোকে নৌ-থানা কোন জায়গায় করা যায় তার সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের জন্য চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজিকে বলা হয়।

এর পরিপ্রেক্ষিতে ডিআইজি নৌ-পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিয়ে গত শনিবার হালদা নদী পরিদর্শন করেছেন। বর্তমানের হালদা নদীর নিরাপত্তায় নৌ-পুলিশের একটি অস্থায়ী ক্যাম্প রয়েছে। এ ব্যাপারে নৌ-পুলিশ সদরঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্ত এ বি এম মিজানুর রহমান বলেন, প্রাথমিকভাবে মদুনাঘাট ও সত্তারঘাটের মাঝামাঝি স্থানে নৌ-থানা স্থাপনের স্থান চিহ্নিত করা হয়েছে। আশা করি দ্রুত সময়ে নৌ-থানা নির্মাণ কাজ শুরু হবে। বর্তমানে হালদায় নৌ-পুলিশের তদারকি রয়েছে। সামনে মা-মাছ ডিম ছাড়বে। তাই আমাদের সতর্কতা বাড়ানো হয়েছে।’